দুধ ও পাউরুটি দিয়ে তৈরি করুন মজাদার রেসিপি নাম ব্রেড কুলফি

প্রতিদিন একই রকম খাবার ভাল লাগে না। মুখের স্বাদ পরিবর্তনের জন্য নিত্যনতুন কিছু খাবার ট্রাই করতে চান অনেকেই। কারণ রোজ একইরকম খাবার খেতে মন চায় না বাড়ির খুদে সদস্যদের। তাই তাদের সন্তুষ্ট করতে আজকে আপনাদের জন্য রইল পাউরুটি এবং দুধ দিয়ে তৈরি একটা অসাধারণ ডেজার্ট। নাম বলতে পারেন ব্রেড কুলফি। দেখ নিন রেসিপি।

যা যা লাগবেঃ

হোয়াইট ব্রেড – ৫টি
লিক্যুউড দুধ – ৪ কাপ
এলাচ – ৩টি

ডেসিকেটেড কোকোনাট (শুকনো নারকেল)- ১/৪ কাপ
কনডেন্সড মিল্ক – ১/২ কাপ
জাফরান – সামান্য

গুঁড়ো দুধ – ১/২ কাপ
বাদাম কুচি এবং চেরি – সাজানোর জন্য

যেভাবে তৈরি করবেনঃ

প্রথম ধাপঃ সবার প্রথমে একটি ছুরির সাহায্যে পাউরুটির চারপাশের বাদামী অংশটি কেটে বাদ দিয়ে দিন। এবার সাদা পাউরুটিগুলি গ্রাইন্ডারে দিয়ে গুঁড়ো করে নিন। অন্যদিকে একটি প্যানে লিক্যুইড দুধ এবং ৩টি এলাচ দিয়ে মিডিয়াম আঁচে দুধটা জাল দিয়ে দিন। এলাচের ফলে একটি খুব সুন্দর ফ্লেভার আসবে। মাঝে মাঝে একটা স্প্যাচুলা বা হাতা দিয়ে একটু নেড়ে নেবেন, যাতে পুড়ে না যায়।

দ্বিতীয় ধাপঃ খানিকক্ষণ পর এরক মধ্যে দিয়ে দিন ডেসিকেটেড কোকোনাট। তবে কারওর কাছে যদি ডেসিকেটেড কোকোনাট না থাকে, তাহলে চিন্তার কোনও কারণ নেই, তাঁরা নারকেল কুড়িয়ে নিয়ে সেটাকে একটা ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে নিয়ে সেটা ব্যবহার করলেই হবে। তবে ব্লেন্ড করতে গিয়ে দেখবে নারকেল যেন একেবারে মিহি না হয়ে যায়। নারকেলের যাতে একটু দানাদারভাব থাকে, তাহলে এর স্বাদ আরও ভালো হবে।

তৃতীয় ধাপঃ নারকেলটা দিয়ে আরও খানিকক্ষণ দুধটা জাল করে নিতে হবে, এরপর তার মধ্যে দিয়ে দিন কনডেন্সড মিল্ক। তবে কেউ চাইলে কনডেন্সড মিল্ক-এর পরিবর্তে চিনি দিতে পারেন, তবে এই ডেজার্টে চেষ্টা করুন কনডেন্সড মিল্কটাই ব্যবহার করতে, তাহলে এর স্বাদ খুব ভালো হবে।

এবার এর মধ্যে দিয়ে দিন জাফরান। জাফরান দিলে এর রঙটা অদ্ভূত সুন্দ আসে। এরপর দিয়ে দিন গুঁড়ো দুধটা। সবকিছু ভালো করে মিশিয়ে নিন। এরপর এর মধ্যে দিয়ে দিন পাউরুটির গুঁড়োটা। তবে পাউরুটির গুঁড়োটা একেবারে দিয়ে দেবেন না। অল্প অল্প করে দিন আর মিক্স করতে থাকুন। আর এই পর্যায়ে গ্যায়ের আঁচটা একেবারে কমিয়ে রাখুন।

চতুর্থ ধাপঃ পাউরুটির গুঁড়োটা দিতে দিতে কিন্তু টানা মিক্স করতে থাকতে হবে, তা না হলেই কিন্তু দলা পাকিয়ে যাবে। পাউরুটির গুঁড়োটা দেওয়ার পর দেখবেন মিশ্রণটা খুবই ঘন হয়ে এসেছে। এইসময়ে টানা নাড়াচাড়া করতে থাকবেন, তা না হলে কিন্তু পুড়ে যেতে পারে। মিশ্রণটি একেবারে ঘন হয়ে গেলে এর মধ্যে থাকা গোটা এলাচগুলি তুলে ফেলুন। এরপর আরও কিছুক্ষণ সময় নিয়ে পাউরুটিটাকে জাল দিয়ে নিন। এখন মিশ্রণটি নামিয়ে নিন। এই পর্যায়ে মিশ্রণটি পাতলা বলে মনে হলেও তা নামিয়ে নেওয়ার পর তা অনেকটা ঘন হয়ে যাবে।

শেষ ধাপঃ নামিয়ে নিয়ে স্প্যাচুলা দিয়ে আবারও বারবার ভালো করে নাড়তে থাকুন, তাহলে এর মধ্যেকার গরম ভাবটা বেরিয়ে যাবে। এবার মিশ্রণটি একটি এয়ার-টাইট কন্টেনারে রেখে রুম টেম্পারেচারে এনে ঠান্ডা করে নিন। এরপর কন্টেনারের ঢাকনা আটকে তা ডিপ ফ্রিজে রেখে দিন। ডেজার্টটা জমাট বাঁধার পর বাইরে বের করে কিছুক্ষণের জন্য রেখে রুম টেম্পারেচারে নিয়ে আসুন। এবার ঢাকনা খুলে একটা ছুরির সাহায্যে লম্বা লম্বা করে বা আপনার মনের মতো করে পিস করে নিন। এবার ওপর দিয়ে কুচোনো বাদাম এবং চেরি দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।

তথ্যসূত্রঃ দুরবাস

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *