ঘরোয়া দুইটি উপাদানে আপনার ত্বক থেকে দূর করুন মেছতা

ত্বকে মেছতার দাগ, সবচাইতে বিরক্তিকর সমস্যা মধ্যে অন্যতম একট । মুখে কালো বা বাদামী রঙের ছোপ ছোপ দাগের কারণে ত্বকের সৌন্দর্য একেবারেই হারিয়ে যায়। এই বিরক্তিকর মেছতার দাগ নারীদের বেশি হয়।

সূর্যরশ্মি, ইস্ট্রোজেন হরমোন নেয়া, কিছু ওষুধ খাওয়া যেমন সোরালেন, আর্সেনিক, অ্যান্টিপিলেপটিরিক, ফেনোথিয়াজেন ইত্যাদি ও কিছু হরমোনের তারতম্য বা থাইরয়েড সমস্যার কারণে অনেকেই এই মেছতা সমস্যায় আক্রান্ত হন।

তবে খুব সহজেই কিন্তু এই মেছতার বিরক্তিকর বিশ্রী দাগ ত্বক থেকে দূর করে দেয়া যায়। আজকে জেনে নেয়া যাক কিছু সহজ উপায়……

১) হলুদের ব্যবহার:

হলুদের ঔষধি গুণের কারণে নানা শারীরিক সমস্যা ও রূপ সমস্যায় প্রাচীনকাল থেকেই হলুদ ব্যবহার হয়ে আসছে। মেছতার দাগ দূর করতেও হলুদের জুড়ি নেই। হলুদের কারকিউমিন ত্বকের রঙ উজ্জ্বল করতে সহায়তা করে এবং মেছতার কারণে ছোপ ছোপ দাগ দূর করে ত্বকের হারানো সৌন্দর্য ফিরিয়ে আনে।

– ৫ চা চামচ হলুদে ১০ চা চামচ তরল দুধ ভালো করে মিশিয়ে পেস্টের মতো তৈরি করে নিন। গুঁড়ো দুধ নয়, তরল দুধ ব্যবহার করুন। কারণ তরল দুধের ল্যাকটিক অ্যাসিড ও ক্যালসিয়াম মেছতার দাগ দূর করতে কার্যকরী।

– এরপর এতে ১ চা চামচ বেসন মিশিয়ে নিন ও পেস্টটি ঘন করে নিন।
– এই পেস্ট আক্রান্ত স্থানে পুরু করে লাগিয়ে রাখুন। ২০ মিনিট বা শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত পেস্টটি ত্বকেই রাখুন।

– এরপর কুসুম গরম পানি দিয়ে ত্বক ধুয়ে শুকনো পরিষ্কার তোয়ালে দিয়ে মুখ মুছে ফেলুন। ভালো ফলাফলের জন্য প্রতিদিন এই পেস্টটি ব্যবহার করুন। কিছুদিনের মধ্যেই ফলাফল নজরে পড়বে।

২) আমন্ড বা কাঠবাদামের ব্যবহার:

কাঠবাদাম ত্বকের দাগ বিশেষ করে মেছতা জাতীয় দাগ দূর করতে বিশেষভাবে কার্যকরী। কারণ কাঠবাদাম ত্বকের মেলানিনের তারতম্য যার কারণে মূলত মেছতার সমস্যা হয়ে থাকে তা দূর করতে সহায়তা করে এবং মেছতার দাগ ত্বক থেকে মিলিয়ে যেতে কাজ করে থাকে।

– পুরো রাত ৫-৬ টি বড় কাঠবাদাম আধা কাপ দুধে ভিজিয়ে রাখুন।

– সকালে এই দুধে ভেজানো কাঠবাদাম পিষে নিন খুব ভালো করে। মিহি পেস্টের মতো তৈরি করে নিন। এতে ১ টেবিল চামচ মধু ভালো করে মিশিয়ে মসৃণ পেস্টের মতো তৈরি করুন। অনেকটা ক্রিমের হয়ে আসবে।

– এই পেস্ট মুখের ত্বকে লাগিয়ে রাতে ঘুমুতে যান। পুরো রাত এভাবেই ত্বকে লাগিয়ে রাখুন। সকালে ঘুম থেকে উঠে ত্বক ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে নিন।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *